Home News মহাকাশে চালকবিহীন যান পাঠালো রাশিয়া

মহাকাশে চালকবিহীন যান পাঠালো রাশিয়া

ক্যাপসুলটি রোববার আইএসএসে নোঙর করবে

by Newsroom
সয়ুজ এমএস-২৩

স্পেসটেটর ডেস্ক ।। ক্ষতিগ্রস্ত ক্যাপসুলের বিকল্প হিসেবে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে চালকবিহীন যান পাঠালো রাশিয়া। চালকহীন এ সয়ুজ ক্যাপসুলটি শুক্রবার ভোরে কাজাখস্তান থেকে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। খবর এএফপির।

তিন মহাকাশচারীকে বহনকারী যানটি ছোট একটি উল্কা দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হলে রাশিয়া নতুন করে এই চালকহীন যান পাঠালো।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের অংশীদার নাসার একটি লাইভ ভিডিওতে দেখা যায়, রাশিয়া নিয়ন্ত্রিত বাইকোনুর কসমোড্রোম থেকে সফলভাবে সয়ুজ এমএস-২৩ নভোযানটি উত্তোলন করেছে।

মস্কোর সময় অনুযায়ী, ক্যাপসুলটি রোববার প্রথম প্রহরে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে নোঙর করার কথা রয়েছে।

এসব কারণে হয়তো সেপ্টেম্বরের আগে পৃথিবীর ভূখন্ডে ফিরতে পারবেন না মার্কিন নভোচারী ফ্রাঙ্ক রুবিও এবং রুশ নভোচারী দিমিত্রি পেটলিন এবং সের্গেই প্রোকোপিয়েভ।

এরা তিনজনই গত বছর সেপ্টেম্বরে এমএস-২২ নভোযানে চড়ে মহাশূন্যে যান এবং ৬ মাস থেকে আগামী মার্চের শেষে ফেরার কথা ছিল।

তবে রাশিয়ান নভোচারীদের নিয়মিত রুটিন কাজ শুরুর কিছুক্ষণ আগে তাদের ক্যাপসুলটি গত ১৪ ডিসেম্বর থেকে কুল্যান্ট ছিদ্র করার কাজ শুরু করে।

কথা ছিল, মার্চের মাঝামাঝিতে সয়ুজ এমএস-২৩ প্রাথমিকভাবে দুই মহাকাশচারী এবং কজন নভোচারীকে সাথে যাত্রা করবে। এরপর রুবিও, পেটলিন এবং প্রোকোপিয়েভের স্থলাভিষিক্ত হবেন তারা।

বাস্তবতা হলো এখন প্রতিস্থাপন ছাড়াই ওই তিনজনকে প্রায় এক বছর আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে থাকতে হবে।

বিজ্ঞানীদের আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে পৌঁছে দেওয়াএবং চালকদের ফিরিয়ে আনার জন্য ক্যাপসুলগুলো মিশনের পুরো সময়কাল জুড়ে কক্ষপথ গবেষণা ল্যাবের সাথে সংযুক্ত থাকে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা থেকে সোমবার স্পেসএক্স ক্যাপসুলে মহাকাশে যাত্রা করার কথা রয়েছে- দুই মার্কিনী, একজন আমিরাতি এবং একজন রুশ বিজ্ঞানীর।

ইউক্রেনে রুশ আক্রমণ শুরু এবং রাশিয়ার ওপর পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার পর থেকে মহাকাশ মস্কো এবং ওয়াশিংটনের মধ্যে সহযোগিতার একটি বিরল স্থানে পরিণত হয়েছে।

রাশিয়া ১৯৬০ এর দশক থেকে মহাকাশে নভোচারীদের আনা-নেয়ার জন্য সয়ুজ ক্যাপসুল ব্যবহার করে আসছে।

Related News