Home News মহাকাশে মানুষ পাঠানো ঘোষণার পরে পরীক্ষাও শুরু করছে ইসরো

মহাকাশে মানুষ পাঠানো ঘোষণার পরে পরীক্ষাও শুরু করছে ইসরো

অভিযান সফল হলে অন্যান্য মানুষবিহীন অভিযানের পথ সুগম হবে। এর ফলে আগামী বছর একটি রোবটও মহাকাশে পাঠানো সম্ভব হবে।

by Newsroom
মহাকাশে মানুষ পাঠানো ঘোষণার পরে পরীক্ষাও শুরু করছে ইসরো

স্পেসটেটর ডেস্ক।।

২০২৫ সালে মহাকাশে প্রথম নভোচারী পাঠানোর পরিকল্পনা বাস্তবায়নের আগে কয়েকদফা পরীক্ষামূলক অভিযানের প্রথম দফা পরীক্ষা শুরু করতে চলেছে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো। শনিবার শ্রীহরিকোটা থেকে স্থানীয় সময় সকাল ৮ টায় (২.৩০ জিএমটি) উৎক্ষেপণ করা হবে গগনযান মহাকাশযান।

রকেট ঠিকমতো কাজ না করলেও তা থেকে ক্রু নিরাপদে বের হতে পারে কিনা সেটিই পরীক্ষা করে দেখা হবে। অভিযান সফল হলে অন্যান্য মানুষবিহীন অভিযানের পথ সুগম হবে। এর ফলে আগামী বছর একটি রোবটও মহাকাশে পাঠানো সম্ভব হবে।

রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের পর চতুর্থ দেশ হিসাবে মহাকাশে মানুষ পাঠানোর পরীক্ষা করছে ভারত। এবছরের পরীক্ষামূলক একাধিক অভিযান সফল হলে পরে তিন নভোচারীকে পৃথিবীর চারপাশের কক্ষপথে পাঠানো হবে। সরকারের ঘোষণামতে, মহাকাশে মানুষ পাঠানোর এই অভিযান হতে পারে ২০২৫ সালেই।

বিবিসি জানায়, ৯ হাজার কোটি রূপি ব্যয়ে পরিকল্পনা করা এই অভিযানের নাম দেওয়া হয়েছে গগনযান প্রকল্প। এর লক্ষ্য হচ্ছে ২৪৮ মাইল দূরের কক্ষপথে নভোচারী পাঠানো এবং তিনদিন পর তাদেরকে আবার পৃথিবীতে ফেরত আনা।সফল হলে যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের পর ভারত হবে মহাকাশে মানুষ পাঠানো চতুর্থ দেশ।

কিন্তু তার আগে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোকে প্রমাণ করতে হবে যে, মানুষ বহনকারী ক্যাপসুল নিরাপদে পৃথিবীতে ফিরতে পারে। সেই পরীক্ষাই ইসরো করতে চলেছে শনিবার- যাকে বলা হচ্ছে, টেস্ট ভেহিক্যাল অ্যাবোর্ট মিশন-১ বা (টিভি-ডি১)।

ইসরো প্রধান এস সোমনাথ বলেছেন, তারা মহাকাশযানের ক্রুর বাইরে বের হতে পারার (ক্রু এসকেপ সিস্টেম- সিইএস) পদ্ধতি পরীক্ষা করবেন। এই পদ্ধতি খুবই জটিল বলে জানান তিনি।

 

আরও পড়ুনঃ মহাকাশযান বদলে দিচ্ছে পৃথিবীর আবহাওয়া, দুঃচিন্তায় বিজ্ঞানীরা

Related News